ওয়াশিংটনে শাপলা শালিকের অনবদ্য পরিবেশনা
নিউজ-বাংলা ডট কম   
মঙ্গলবার, ০৭ নভেম্বর ২০১৭

বাংলা সংষ্কৃতিকে তার আংগিনা থেকে  সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দেবার অংগীকারে ব্রত  ইংল্যান্ড থেকে আগত জনপ্রিয় ব্যান্ড "শাপলা শালিক"  লালন ও লোক সংগীত পরিবেশন করে গ্রেটার ওয়াশিংটনের প্রবাসী বাংগালীদের মন জয় করল। সত্য এবং সুন্দরের অন্নেষণে সাংষ্কৃতিক গোষ্ঠী ধ্রুপদের আয়োজনে  বর্ণাঢ্য  এই আয়োজনে ছিল আধুনিকতার ছাপ। অনুভবের গভীরতায় আর  নান্দনিকতার প্রলুব্ধতায় যে প্রণোদনা—লন্ডনের ভিন্ন পরিবেশে বেড়ে উঠা সিলেটী কন্যা ফারজানা শালিক (শাপলা)  তার কন্ঠের মাঝে তুলে ধরেছেন তা ছিল এক কথায় অনন্য।


রুনু খানের উপস্থাপনায় গত  ৩রা নভেম্বর শুক্রবার রাতে ভার্জিনিয়ার ষ্প্রীংফিল্ডস্থ থমাস এডিসন হাইস্কুল অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় এই  ব্রিটিশ বাংলাদেশীর  লোক সংগীতের ফিউশন। শুরুতেই জেল হত্যা দিবসে জাতীয় চার নেতার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়। এরপর "শাপলা শালিক"এর অনবদ্য পরিবেশনা।

প্রাচ্যের বাদ্য সংগীতের সংমিশ্রনে তিনি  গাইলেন বাংলার লোক সংগীতের তিন দিক পাল লালন শাহ, হাসন রাজা আর শাহ আব্দুল করিমের গান। তাদের পরিবেশিত গান গুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল  বাউলা কে বানাইল রে, খেপা, আমি ওপার হয়ে বসে আছি, ঝিলমিল ঝিলমিল, সাধের লাউ, তোমার ঘরে বসত, মনের মানুষ, সময় গেলে সাধন, বন্ধে মায়া লাগাইছে, বারাম খানা, বলি মা ইত্যাদি। বাংলার লোক সংগীতের মৌলিক সীমানাটি ধরে রেখে আধুনিক যন্ত্রসংগীতের ফিউশনের কারনে কিছু কিছু গানের ছন্দপতন হলেও শাপলার গায়কী ঢং আর আধুনিক
উপস্থাপনা সাথে বাদ্য যন্ত্রের দারুন ব্যবহারে "শাপলা শালিক"এর  এই পরিবেশনা পায় এক নতুন মাত্রা।  গ্রেটার ওয়াশিংটনের সর্ব শ্রেনীর দর্শক-শ্রোতার কাছে এনে দেয় এক আনন্দধারা।অনুষ্ঠানে তরুণ প্রজন্ম এবং সিলেটি প্রবাসীদের উপস্থিতি ছিল লক্ষনীয়।

দর্শক-শ্রোতারা শিল্পীর সাথে কন্ঠ মিলিয়ে তাদের এই আনন্দ-অনুভূতি প্রকাশ করেছে বার বার। আধুনিক এই প্রযুক্তির যুগে গান যে শুধু শোনার বিষয় নয়, দেখারও বটে। শাপলা শালিকের অনবদ্য পরিবেশনা ছিল তারই প্রতিচ্ছবি।

লন্ডনের মাটিতে বেড়ে উঠা শাপলার জন্ম সিলেটের তাজপুরে। পুরো নাম ফারজানা শালিক। ডাক নাম শাপলা।  নিজের নামের সাথে মিলিয়েই তার ফিউশন ব্যান্ড-"শাপলা শালিক"। বাংলার লোক সংষ্কৃতির রূপ রসকে প্রাচ্যের যন্ত্র সঙ্গীতের সংমিশ্রনে তিনি  মনের আনন্দে পরিবেশন করছেন বাংলা গান। লন্ডনের কুইন এলিজাবেথ হল এবং সংসদের হাউসগুলির মতো ঐতিহাসিক স্থানগুলিতেসঙ্গীত পরিবেশন করে তিনি ছড়িয়ে দিচ্ছেন বাংলা সংষ্কৃতিকে। বাংলাদেশ থেকে লন্ডন। এরপর সীমানা পেরিয়ে তিনি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে গেয়ে চলেছেন বাংলা গান।  ধ্রুপদের আয়োজনে এই প্রথমবারের মত শাপলা শালিকের যুক্তরাষ্ট্রে আগমন। আর প্রথম দর্শনেই তিনি জয় করলেন  গ্রেটার ওয়াশিংটনের  দর্শক শ্রোতাদেরকে।

সর্বশেষ আপডেট ( মঙ্গলবার, ০৭ নভেম্বর ২০১৭ )