মেরিল্যান্ডে দুস্থদের মাঝে "বাই" র খাবার বিতরণ
নিউজ-বাংলা ডেস্ক   
শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৭

 উত্তর আমেরিকাতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের  সব চেয়ে পুরানো সংগঠন বাংলাদেশ এসোশিয়েশন অব আমেরিকা (বাই)  গত ২০শে অক্টোবর শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় মেরিল্যান্ডের রকভিলে দুস্থদের মাঝের খাবার বিতরণ করলো।


495 হাই ওয়ে আর MD-270 পার হয়ে   সুউচ্চ অট্টালিকার  সারি আর প্রাচুর্যের এই শহরে  ২০শে অক্টোবরের  আপরাহ্নে আমরা এসে থামলাম রকভিল শহরের ভাসমান দুস্থ মানুষদের এক সেল্টারের পাশে।   উপলক্ষ বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব আমেরিকা (বাই)র আয়োজনে প্রাচুর্যের  দেশে  সেল্টারে আশ্রিত কিছু  দুস্থ মানুষকে এক বেলা খাবার পরিবেশন।

 
মেরিল্যান্ডের রকভিলস্থ  Montgomery county coalition for the homeless(MCCH)পরিচালিত এই সেল্টারের  ভলেন্টিয়ার র সহায়তায় আমরা আমাদের সাথে আনা খাবার গুলি নিয়ে সেল্টারের ডাইনিং রুমে প্রবেশ করলাম। এর আগে  সেল্টারের বাহিরে  এর ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সেল্টারের আশ্রিত মানুষগুলির করুণ মুখগুলি আমাদের আন্দোলিত করলো দারুন ভাবে।  এ এক অন্যরকম অভিজ্ঞতা। বাংলাদেশে থাকা কালে বন্যা জলচ্ছাস আর নানা বিপদ সংকুল সময়ে আমরা বার বার পাশে গিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলাম বিপন্ন মানুষের পাশে।
কিন্তু বিশ্বের সব চেয়ে ক্ষমতাধর দেশের গহীনে দারিদ্রের এই রূপ দেখে সত্যিই আশ্চর্য হয়েছি বারে বারে। একটি দরিদ্র দেশের নাগরিক হিসাবে ভাগ্যের অন্নেষনে যুক্তরাষ্টে আসা আমরা কতিপয় প্রবাসী ব্যস্ত হয়ে পরলাম দুস্থদের সেবায়। একেবারে আমাদের দেশী খাবার। বাই এর  কর্মকর্তাদের তৈরী  বিরিয়ানী, পোলাও, মাংশ, সব্জি, ছোলার চানা , কাবার সালাদের সাথে একটি করে সফট  ড্রিংস এবং ফিন্নি।  সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় লাইন  এই সেল্টারে আশ্রিত  সদস্যরা একে একে খাবার নিল।

"বাই"এর কর্মকর্তারা, তাদের পরিবারের সদস্যরা  সুশৃংখল ভাবে এই খাবার পরিবেশন প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করলো। সেল্টার সম্পর্কে বিভিন্ন সময় নানা কথা শুনেছি। অনেকেই তাদের পুজিবাদী মানসিকতায় সেল্টারে থাকা লোকজন সম্পর্কে কথা বলেছে। বলেছে  জীবনের অচলায়তনে বন্দী এই মানুষগুলিকে সচল করে তুলার কথা। বলেছে আশ্রয়-প্রশ্রয় না দিয়ে ওদেরকে কর্মক্ষম করে তোলার নানা সম্ভাবনার কথা।  আমাদের কাছে কিন্তু এই অসহায় মানুষগুলিকে পুরোপরি সুস্থ মনে হয়নি।  অনেকেই শারিরিক ভাবে অক্ষম, কেহ বা মানসিক ভাবে। অনেকটা বাধ্য হয়েই হয়ত  এই আশ্রমে আশ্রিত।

 
এই সেল্টারে খাবার পরিবেশনের সময় ছিল বিকেল ছয়টা থেকে সাড়ে সাতটা। নিদ্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই "বাই" এই স্বেচ্ছাসেবী খাদ্য প্রদান কর্মসূচী সম্পন্ন হলো। সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হিসাবে "বাই" এর এই আয়োজন নিঃসন্দেহে প্রসংশার দাবী রাখে।

বাই এর এই কর্মসূচীতে সার্বিক দায়িত্ব পালন করেন সংগঠনের সভাপতি সফি দেলোয়ার কাজল, সাধারন সম্পাদক সালেহ আহমেদ, ট্রেজারার রেহানা কুদ্দুস শিখা পরিচালক  নুরাইন জামিল চমন, সাবিহা চৌধুরী, মিজানুর রহমান ভূইয়া, আনন্দ খান প্রমূখ।
সর্বশেষ আপডেট ( শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৭ )