সুচিত্রা সেনের বাড়িতে
নিউজ-বাংলা ডেস্ক   
বৃহস্পতিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭

পাবনা শহরে  সুচিত্রা সেনের বাড়ি।  মহানায়িকা সুচিত্রা সেনকে নিয়ে অনেক লেখায়   এই বাড়ির গল্প এসেছে। পাবনা শহরের নিকটেই   গোপালপুর। এই এলাকার হেমসাগর লেনে সুচিত্রা সেনের বাড়ি। এখন এই বাড়িটি সুচিত্রা সেন স্মৃতি সংগ্রহশালা হিসেবে পরিচিত। বাড়ির সামনের বিশাল আঙিনায় ফুটে আছে বর্ষার নানা ফুল।

 

অনেক বছর ধরে অবৈধ দখলে ছিল বাড়িটি। ২০১৪ সালে দখলমুক্ত হয়। গত ৬ এপ্রিল দর্শনার্থীদের খুলে দেওয়া হয় বাড়িটি। পাবনা জেলা প্রশাসন এখন এর দেখভাল করছে।
সুচিত্রা সেনের বাড়িটি এখন সংগ্রহশালাতে ১০ টাকার টিকিটে ঘুড়ে আসা যায়।  বাড়ির মূল ফটক পার হয়ে  বিরাট উঠান , তারপর মূল ঘরগুলো। ঘরে পা দিতেই মোহিত হতে হবে সুচিত্রা সেনের সিনেমার গানের সুরে।
ঘরগুলোর দেয়ালজুড়ে ছোট–বড় ফ্রেমে সাজানো সুচিত্রা সেনের ছবি। কোনো ছবিতে ধরা পড়েছে তাঁর নায়িকা হওয়ার মুহূর্ত, আবার কোনো ছবিতে রয়েছেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা।
আরও আছে সুচিত্রা সেনের পছন্দ-অপছন্দ এবং নানা অজানা বিষয় নিয়ে লেখা ফেস্টুন। পটভূমিতে বেজে যাচ্ছে একটার পর একটা সুচিত্রা সেন অভিনীত সিনেমার গান।
প্রতি দিনই বাড়িটা ঘুরে দেখতে আসে অনেকেই । যাদের অনেকেরই   স্বপ্নের নায়িকা সুচিত্রা সেন।  
সংগ্রহশালার ভেতরেবাড়ির বেশ কটা ঘর এখনো ফাঁকা পড়ে আছে। ধীরে ধীরে এগুলোকেও সাজানো হবে সুচিত্রা সেনের স্মৃতিবিজড়িত জিনিসে। শৈশব ও কৈশোরের অনেকটা সময় সুচিত্রা সেন কাটিয়েছেন
এই বাড়িতে। একটা দেয়ালের ফেস্টুনে লেখা আছে ঘর সাজানোর প্রতি সুচিত্রা সেনের বিশেষ দুর্বলতার কথা। এই বাড়ির কোথাও এখন সুচিত্রা সেনের নিজ হাতে সাজানোর কোনো ছোঁয়া নেই।
তবে এর প্রতিটি কোণেই সুচিত্রা সেনের বেড়ে ওঠা, শৈশবের দাপিয়ে বেড়ানোর যে ছোঁয়া আছে, তাই বা কম কিসে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টার মধ্যে সবাই এসে ঘুরে যেতে পারবেন এখানে।

সর্বশেষ আপডেট ( বৃহস্পতিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭ )