যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘জাতীয় গণহত্যা দিবস’ পালিত
নিউজ-বাংলা ডেস্ক   
শুক্রবার, ৩১ মার্চ ২০১৭

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে ‘জাতীয় গণহত্যা দিবস’ পালিত হয়েছে। ২৫ মার্চের ভয়াল রাতের নারকীয় পাকিস্তানি গণহত্যাকে স্মরণ করে দিনটি পালন করা হয়।
দূতাবাস প্রাঙ্গনে আয়োজিত ‘জাতীয় গণহত্যা দিবস’-এর ওই অনুষ্ঠানে শহীদদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্বলন করা হয়। পড়ে শোনানো হয় দিনটি উপলক্ষ্যে দেওয়া রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী। দিনটিকে উপলক্ষ্য করে দূতাবাস প্রাঙ্গনে পাকিস্তানি নৃশংসতার আলোকচিত্র ও তথ্যচিত্রও প্রদর্শন করা হয়।  অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় সংঘটিত পাকিস্তান সেনাবাহিনীর গণহত্যাকে মানব-ইতিহাসের অন্যতম নৃশংস নিধনযজ্ঞ বলে মন্তব্য করেন যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন। তিনি জানান, জিয়া বাংলাদেশের ওপর পাকিস্তান সেনাবাহিনীর কাঠামোগত গণহত্যায় ৩০ লাখেরও বেশি মানুষ প্রাণ হারান। যৌন হয়রানির শিকার হন দেশের এক তৃতীয়াংশ তরুণী। ১ কোটি মানুষ শরণার্থী হয়ে ভারতে আশ্রয় নেয়। আর ৩ কোটি মানুষ দেশের ভেতরে ঘরহারা জীবন যাপনে বাধ্য হয়।’

জিয়া উদ্দিন বলেন, ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধ শেষে ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে’।

উল্লেখ্য, গত ১১ মার্চ জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতভাবে ২৫ মার্চকে গণহত্যা দিবস পালনের প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। ২০ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে ওই দিন পাকিস্তানি বাহিনীর বর্বর হামলার কালো রাতকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে ‘গণহত্যা দিবস’ হিসেবে পালনের প্রস্তাব অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।
সর্বশেষ আপডেট ( শুক্রবার, ৩১ মার্চ ২০১৭ )