ভিন্ন স্বাদের ইফতার
রূণীর রান্না ঘর   
সোমবার, ২৭ জুন ২০১৬


চলতি বছরে ১৬ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে রোজা পালন করছেন  যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীরা।  দীর্ঘ সময় ধরে সব ধরনের পানাহার থেকে বিরত থাকায় শরীর অনেকটাই দুর্বল হয়ে যায়। তাই দুর্বল শরীরে প্রয়োজনীয় শক্তি যোগাতে ইফতারিতে ভালো আইটেম তৈরি করার  চেষ্টা থাকে সবার মাঝে। আবার বাঙালিদের ঐতিহ্য অনুযায়ী প্রতিদিন ইফতারিতে ছোলা-পেঁয়াজু অনেক সময় আমাদের রুচি নষ্ট করে দেয়। তাই খাবার রুচি ধরে রাখতে এবং শরীরের প্রয়োজনীয় পুষ্টি ও শক্তি যোগাতে ভূমিকা রাখতে পারে কিছু ভিন্নধর্মী ইফতার ম্যানু।

ভেজিটেবল পাস্তা
 
প্রয়োজনীয় উপকরণ: ১. ম্যাকারনি নুডলস ২৫০ গ্রাম। ২. একটি সবুজ ও একটি হলুদ ক্যাপসিকাম (লম্বা করে কাটা)। ৩. গাজর, আলু, বরবটি, মাশরুম, বাঁধাকপি, বেবি কর্ন, ব্রকলি টুকরো (২৫০ গ্রাম)। ৪. সয়াসস তিন চা চামুচ। ৫. একটি ডিম। ৬. টেস্টিং সল্ট পরিমাণ মতো। ৭. কাঁচামরিচ কুচি। ৮. ১টি বড় পেঁয়াজ কিউব করে কাটা ৯. তেল ১/২ কাপ ১০. টমেটো সস তিন চা চামুচ। ১১. লবণ পরিমাণ মতো। ১২. ধনেপাতা পরিমাণ মতো। ১৩. পালং শাক পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালী

ম্যাকারনি নুডলস গরম পানিতে সেদ্ধ করুন। সেদ্ধ করার সময় এতে হালকা লবণ ও তেল দিন। সম্পূর্ণ সেদ্ধ হওয়ার আগে এতে গাজর, আলু, বরবটির টুকরোগুলো দিন। মিশ্রণটি সেদ্ধ হওয়ার পর সেগুলো ছেকে
চালনিতে নিন। ডিম ভেঙ্গে অন্য একটি পাত্রে ঝুরি করে নিন। এরপর অন্য একটি কড়াই চুলায় দিন। সেটি গরম হয়ে এলে এতে তেল দিন। তারপর পেঁয়াজ, মাশরুম, বাঁধাকপি, বেবি কর্ন, ব্রকলি, ক্যাপসিকাম, লবণ, টমেটো সস, কাঁচা মরিচ কুচি, সয়াসস, ডিম ঝুরি দিয়ে একটু ভেজে
নিন। তারপর সেদ্ধ নুডলস ও সবজিগুলো এবং পালং শাক দিয়ে ভালোভাবে ভেজে নিন। এরপর বাটিতে ঢেলে ধনেপাতা দিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার ভেজিটেবল পাস্তা।


 কিমা আলুর চপ

 ইফতারে খুব পরিচিত একটি খাবার আলুর চপ। আলুর সহজ লভ্যতা, সাদামাটা রন্ধন প্রণালীর  জন্য খাবারটি বেশ জনপ্রিয়।  কিন্তু সবাই এক পদ্ধতিতে খাবারটি তৈরি করেন না। এলাকাভেদে রেসিপিটির রন্ধন পদ্ধতিরও ভিন্নতা রয়েছে। পাশাপাশি রয়েছে স্বাদের ভিন্নতা।
আলুর চপের তেমনই একটি রেসিপি দেয়া গেল। জেনে নেওয়া যাক কিমা আলুর চপ বানাবেন উপায়।

পুর তৈরির উপকরণঃ আধা কাপ মাংস কিমা (গরু),  চার/পাঁচ টি কাঁচা মরিচ কুচি, আধা চা চামচ হলুদ গুড়ো, আধা চা চামচ জিরা গুড়ো, আধা চা চামচ গরম মসলা গুড়ো, আধা চা চামচ কাবাব মসলা, চা চামচ সয়াসস, চা চামচ আদা-রসুন বাটা, দুই টেবিল চামচ তেল, লবণ স্বাদমতো।

আলু ভর্তার উপকরণঃ দুই কাপ সেদ্ধ আলু, দুটি পেঁয়াজ কুচি বা বাটা, তিন-চারটি মরিচ বাটা বা কুচি, সামান্য সরিষার তেল, লবণ স্বাদমতো, একটি ডিম ফেটানো, ব্রেডক্রাম্ব, ভাজার জন্য তেল, ধনেপাতা কুচি পরিমাণমতো।


প্রস্তুত প্রণালী

প্রথমে প্যানে তেল দিয়ে গরম করে এতে পেয়াঁজ কুচি দিয়ে নরম না হওয়া পর্যন্ত নেড়ে নিন। এরপর এতে দিন আদা-রসুন বাটা, হলুদ গুড়ো, জিরা গুড়ো, লবণ, কাঁচা মরিচ কুচি। কিছুক্ষণ নেড়ে মসলা কষে এলে মাংস দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে নিন। এরপর সামান্য পানি দিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। মাংস সেদ্ধ হয়ে এলে ঢাকনা খুলে দিয়ে কিমা ভাজা ভাজা করে নিন।
এভাবে ঝরঝরে মাংসের পুর তৈরি করে নিন। সেদ্ধ আলু হাতে চটকে এতে পেঁয়াজ, মরিচ,  লবণ , ধনে পাতা কুচিও সরিষার তেল দিয়ে মেখে ভর্তার মতো তৈরি করে নিন। আলু ছোটো ছোটো অংশে ভাগ করে নিয়ে হাতের তালুতে রেখে বাটির মতো তৈরি করে ভেতরে পুর দিয়ে ঢেকে দিন। এরপর একটু চাপ দিয়ে চপের আকার দিন। এভাবে সব চপ তৈরি করে ফেলুন।
একটি প্যানে ডুবো তেলে ভাজার জন্য তেল গরম করে নিন। ডিম সামান্য লবণ দিয়ে ফেটিয়ে নিন। এরপর একটি করে চপ ডিমে চুবিয়ে ব্রেডক্রাম্বে গড়িয়ে নিন। এরপর ডুবো তেলে ছেড়ে লালচে করে ভেজে নিন।
চপ ভেজে একটি কিচেন টিস্যুতে রেখে বাড়তি তেল ঝড়িয়ে নিন।  ইফতারে পরিবেশন করুন মজাদার পুরে ভরা কিমা আলুর চপ।

 চিকেন শর্মা রোল


উপকরণঃ স্পেশাল রুটির জন্য: ময়দা ৪ কাপ, চিনি ২ টেবিল চামচ, লবণ ১ চা চামচ, গুঁড়োদুধ ২ টেবিল চামচ, ইস্ট ২ টেবিল চামচ, তেল ২ টেবিল চামচ, গরম পানি ১ থেকে দেড় কাপ।

শর্মার পুর তৈরির জন্য: ২০০ গ্রাম মুরগির হাড় ছাড়া মাংস (লম্বাটে চিকন করে কাটা), ১ কাপ পেঁয়াজ কুঁচি, ১ টেবিল চামচ চিলি সস, ১ চা চামচ ওয়েস্টার সস, ১ চা চামচ সয়াসস, ১ চা চামচ কাবাব মসলা, মরিচ কুঁচি প্রয়োজনমতো, লবণ স্বাদমতো।
অন্যান্য: টমেটো লম্বাটে কুচি করে কাটা, শসা লম্বাটে কুচি করে কাটা, পেঁয়াজ স্লাইস করে ছাড়িয়ে নেয়া, লেটুস পাতা কুঁচি।
স্পেশাল সস তৈরির জন্য: টকদই ২ কাপ, ১/৪ চা চামচ গোলমরিচ গুঁড়ো, লবণ স্বাদমতো, ১/৪ চা চামচ টমেটো সস।

পদ্ধতি

স্পেশাল রুটি তৈরি: কুসুম গরম পানি ইস্ট গুলিয়ে রাখুন এবং ময়দা, চিনি, লবণ, গুঁড়োদুধ একসাথে ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে এতে ইস্ট গোলানো পানি এবং পরিমাণ মতো পানি দিয়ে রুটি বানানোর ডো তৈরি করে নিন। এরপর ডো আধা ঘণ্টা গরম জায়গায় রেখে দিন। এতে ডো ফুলে দ্বিগুণ হয়ে যাবে। আধা ঘণ্টা পর খামির ১০-১২ টি ভাগ করে রুটি বেলে নিন সাধারণ রুটির চাইতে একটু পুরু করে। এরপর রুটিগুলো ভালো করে সেঁকে নিন।
শর্মার পুর তৈরি: প্রথমে লম্বাটে করে কেটে নেয়া মাংস সামান্য লবণ দিয়ে পানিতে সেদ্ধ করে নিন। এরপর একটি প্যানে তেল দিয়ে এতে পেঁয়াজ ও মরিচ কুঁচি দিয়ে নেড়ে নিন। তারপর এতে লবণ ও সসগুলো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে সেদ্ধ করা মাংস দিয়ে ভালো করে নেড়ে মিশিয়ে নিন। মাংস ভাজা ভাজা হয়ে এলে নামিয়ে নিন। এবং স্পেশাল সস তৈরির জন্য রাখা সব উপকরণ একসাথে মিশিয়ে সস তৈরি করে নিন। ভাজা মাংসের পুরে স্পেশাল সসটি দিয়ে ভালো করে নেড়ে মিশিয়ে তৈরি করে নিন শর্মার পুর।
চিকেন শর্মা তৈরি: ছেঁকে নেয়া রুটি প্লেটে বিছিয়ে নিয়ে এর এক কিনারে পুরু করে ভেতরের পুর দিয়ে দিন। পুরের উপরে লেটুস পাতা, পেঁয়াজ, শসা ও টমেটো কুচি দিয়ে সাজিয়ে দিন। এরপর রুটিটি রোল করে
শর্মা তৈরি করে ফেলুন। চাইলে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল, কিচেন টিস্যুতে পেঁচিয়ে নিতে পারেন এবং রুটি বড় আকারের হলে মাঝে কেটে দিতে পারেন। হয়ে গেল মজাদার চিকেন শর্মা রোল।



বাঙালি ভোজনরসিক। ইফতারিতে মজার মজার খাবার সবার পছন্দ। সেই ইফতারিতে যদি আমিষ খাবারের পাশাপাশি মিষ্টিজাতীয় ও পানীয় খাবার থাকে তাহলে রুচি অনেক বেড়ে যায়। ৪ পদের রেসিপি নিয়ে আমাদের এবারের বিশেষ আয়োজন। 

কুলফির স্বাদে ম্যাঙ্গো লাচ্ছি

উপকরণ: কিউব করে কাটা আম আধা কাপ, টকদই ১ কাপ, কুলফি আইসক্রিম ২ স্কুপ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, বিট লবণ আধা চা চামচ, চেরি সাজানোর জন্য, চিনি স্বাদমতো, পানি ও বরফ কুচি পরিমাণমতো।
প্রণালী: চেরি ছাড়া বাকি সমস্ত উপকরণ ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। এবার আম কুচি ও চেরি দিয়ে সাজিয়ে ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা পরিবেশন করতে হবে।

টক ঝাল মিষ্টি বিফ শাসলিক

উপকরণ: গরুর মাংস (হাড় ছাড়া) আধা কেজি, টক দই ২ টেবিল চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, ওয়েস্টার সস ১ চা চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া ১ চামচ, টমেটো সস ২ টেবিল চামচ, জয়ত্রী গুঁড়া ১ চিমটি, ক্যাপসিকাম ১/৪ কাপ, গাজর ১/৪ কাপ, পেঁয়াজ ১/৪ কাপ, বাটার ৩ টেবিল চামচ, শাসলিক কাঠি পরিমাণমতো ও লবণ স্বাদমতো।
প্রণালি: মাংসের সাথে সবজি ছাড়া বাকি সমস্ত উপকরণ মেখে ১ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। এবার শাসলিক কাঠিতে মাংস, ক্যাপসিকাম, পেঁয়াজ ও গাজর গেঁথে বাটারে দিয়ে ভেজে পছন্দমতো সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে।


মুচমুচে মজাদার পাউরুটির পাকোড়া

প্রবাসের ব্যস্ত জীবনে বিকেলে কাজ থেকে এসে ইফতার তৈরীর তেমন সময় থাকে না।   তাই চাই চটপট কিছু করার।  কম সময়ে মনোলোভা স্বাদে এবং  ভিন্নতায় বেছে নিতে পারেন মুচমুচে মজাদার পাউরুটির পাকোড়া । সহজ রেসিপির মচমচে খাবারটি তৈরি হবে মাত্র পাঁচ মিনিটেই।  

 
যা যা লাগবেঃ পাউরুটি ৩ পিস, বেশন আধা কাপ, চালের গুড়া আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো, গোলমরিচ গুড়া আধা চা চামচ, ১ টা পেঁয়াজকুচি, ৩ টা কাঁচামরিচ কুচি, বেকিং সোডা আধা চা চামচ,
তেল ভাজার জন্য, পানি পরিমাণমতো, ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ।

যেভাবে করবেনঃ পাউরুটির চারিদিক সমান করে মাঝখান দিয়ে কেটে ৩ কোনা করে নিন। সব উপকরণ একসঙ্গে মেখে গাঢ় মিশ্রণ তৈরি করতে হবে। এবার পাউরুটি মিশ্রণে চুবিয়ে ডুবো তেলে ভেজে নিন। ব্যাস, পাঁচ মিনিটেই হয়ে গেল মনোলোভা স্বাদের পাউরুটির পাকোড়া।
 

শাহী হালিম

উপকরণ: খাসি/গরু/মুরগির মাংস আধা কেজি, গম ভাজা ৩ টেবিল চামচ, পোলাওয়ের চাল ৩ টেবিল চামচ, পাঁচমিশালি ডাল ২ কাপ, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ,  ১০-১২টা পেঁয়াজ কুচি, কাঁচামরিচ ১০-১২টা, শুকনা মরিচ ৫-৬টা, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, এলাচ ৩-৪টা, দারুচিনি ছোট ২-৩ টুকরা, লবঙ্গ ৩-৪টা, গোল মরিচের গুঁড়া ১ চা চামচ, তেজপাতা ২টা, ঘি ১/৪ কাপ, তেল ১/৪ কাপ, বেরেস্তা আধা কাপ, সামান্য জয়ফল ও জয়ত্রীর গুঁড়া, আদা কুচি ১ টেবিল চামচ, লেবু ৩-৪ পিস, তেঁতুলের মাড় ২ টেবিল চামচ, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো।

প্রণালী: মাংস, তেল, স্বাদমতো লবণ, সমস্ত গরম ও বাটা মসলা মিশিয়ে হাঁড়িতে বসিয়ে ২০ মিনিট কষিয়ে নিন। এবার তাতে ডাল, চাল ও গম ভাজা দিয়ে নেড়ে বেশি করে পানি দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। ফুটে উঠলে জ্বাল কমিয়ে রেখে দিতে হবে যতক্ষণ না সবকিছু সেদ্ধ হয়ে যায়। ঘন ঘন নাড়তে হবে, তা নাহলে ডেকচির তলায় লেগে যেতে পারে। পানি শুকিয়ে যখন ঘন হয়ে আসবে, মাংস ছাড়া ছাড়া হয়ে যাবে, চাল-ডাল-গম সব মিশে যাবে; তখন নামিয়ে নেবেন। যদি বেশি ঘন হয়ে যায় তাহলে আরও একটু গরম পানি ঢেলে আবার কিছুক্ষণ জ্বাল দিন। পরিবেশনের সময় উপরে ঘি, বেরেস্তা, পেঁয়াজ কুচি, ধনে পাতা কুচি, আদা কুচি ও কাঁচামরিচের বাগার দিয়ে লেবু ও তেঁতুলের মাড় সহযোগে পরিবেশন করুন।


চিকেন চিজ রোল

উপকরণ: মুরগির কিমা ১ কাপ, পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, সয়াসস ১ চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ, ঢাকাই পনির ১/৪ কাপ, ময়দা ১ কাপ, কর্ন ফ্লাওয়ার ১/৪ কাপ, ডিম ১টি, তেল রোল ভাজার জন্য যতটুকু প্রয়োজন, সস পছন্দমতো ও লবণ স্বাদমতো।
প্রণালি: ময়দা, কর্ন ফ্লাওয়ার ও লবণ একসাথে মিশিয়ে ২ টেবিল চামচ তেল ও পানি দিয়ে ডো তৈরি করে ১৫ মিনিট ঢেকে রেখে দিতে হবে যাতে ডোটা নরম হয়ে যায়। এবার কড়াইতে পেঁয়াজ কুচি ভেজে কিমা ও বাকি উপকরণ দিয়ে মিশিয়ে রান্না করতে হবে। এরপর তা নামিয়ে চিজ মিশিয়ে রোল বানানোর ফিলার তৈরি করে নিতে হবে। এবার ডো দিয়ে ছোট ছোট রুটি বেলে ফিলার দিয়ে রুটির চারপাশে ডিম ব্রাশ করে রোল বানিয়ে ফ্রিজে ১৫ মিনিট রেখে দিতে হবে। এবার রোলগুলো
 ডুবো তেলে বাদামি করে ভেজে পছন্দমতো সসের সাথে সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

সর্বশেষ আপডেট ( সোমবার, ২৭ জুন ২০১৬ )