News-Bangla - নিউজ বাংলা - Bangla Newspaper from Washington DC - Bangla Newspaper

২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, রবিবার      
নতুন বছরে প্রিন্ট কর
আসমা আহসান   
সোমবার, ০৮ জানুয়ারি ২০১৮

নতুন বছর আসুক নবীন হয়ে, সজীব হয়ে। ইংরেজি নববর্ষ পেরিয়ে এসেছি। চলার পথে গত বছর যা ছিল সুন্দর একে ধরে থাকি; অসুন্দর যা ছিল, ছেড়ে আসি এদের। নতুন হয়ে আমি, নতুন আমি, স্বাস্থ্য রক্ষার নতুন অঙ্গীকার নিয়ে আসি। এমন অঙ্গীকার যা রাখতে পারি—আগামী বছরের জন্য যেন তা উদ্দীপনার উৎস হয়ে থাকে।
১. স্বাস্থ্যকর আহার হোক নতুন অঙ্গীকার এ বছর থেকে নতুন প্লেটে খান। প্লেটটি এপাশ-ওপাশ হবে ৯ ইঞ্চি। এর অর্ধেক ভরে থাকবে শাকসবজি ও ফল। চার ভাগের এক ভাগে থাকবে শর্করা। চিনি, মিষ্টি, মিষ্টি পানীয় খাবেন না তেমন। আটার রুটি, লাল চালের ভাত হবে শস্য খাদ্য। চার ভাগের এক ভাগে থাকবে প্রোটিন। চর্বি মাংস না। মোরগের কচি মাংস, মাছ, ডাল। এক কাপ দই। প্রচুর পানি। এ হবে নিত্যদিনের খাবার। তিন বেলা এমন খাবেন। বাকি দুটো নাশতা। মধ্য সকালে ও বিকেলে। এক টুকরো ফল, এক মুঠো বাদাম। আর ব্যায়াম করবেন প্রতিদিন আধা ঘণ্টা। ওজন বেশি থাকলে শরীরে তা ঝরবে।

পরিমিত পরিমাণে খেতে হবে২. ব্যস্ত দিনেও নিয়মিত ওয়ার্কআউট চাই
দিনে ১০ হাজার কদম হাঁটুন জোরে বা দিনে ৫০টি ওঠবস। ৫০টি দড়িলাফ। কর্মস্থলে বাসে যাচ্ছিলেন, এক স্টপ আগে নেমে অফিসে হেঁটে যাবেন। লিফটে না গিয়ে সিঁড়ি বেয়ে উঠবেন দালানে। গেরস্থালি কাজ করবেন প্রতিদিন ১০ মিনিট। প্রতি বেলার আহারের পর ১০ মিনিট হাঁটবেন। রক্তের সুগার সুস্থিত থাকবে।
৩. ঘরে রান্না করে খাব, বাইরে খাব কম
কেবল চিনি মিষ্টি খাওয়া কমালেই হলো না। এভাবে ওজন কমানো যায় না। স্বাস্থ্যকর আহার শুরু করতে হবে নিজ ঘর থেকে। ঘরে রান্না করে খেতে হবে। সপ্তাহে ছুটির দিনে রান্না করে পুরো সপ্তাহ খেলেই হয়। বাইরে খেতে পারেন ভালো সুপ, ভাপে সেদ্ধ সবজি, তাজা ফলের রস।

গেরস্থালির কাজ করুন প্রতিদিন ১০ মিনিট৪. ভালো মা-বাবা হওয়া চাই
খুব যত্নশীল মা-বাবাও উদ্বিগ্ন থাকেন সন্তানকে মানুষ করে তোলার ব্যাপারে। বাচ্চাদের সঙ্গে অন্তত ১০ মিনিট বাড়তি সময় কাটান। অন্তত এক বেলা সবাই মিলে একসঙ্গে খান। ছোটখাটো টুকরো আলাপ করুন তাদের সঙ্গে। শেয়ার করুন নিজেদের অভিজ্ঞতা।
৫. প্রতি রাতে ৮ ঘণ্টা সুনিদ্রা নেবেন
ঘুম না হলে ফাস্ট ফুড খাওয়া হয়। পেট বাড়ে, তাই ঘুমানোর চেষ্টা করবেন রাত ১০টায়, উঠবেন সকাল ৬টায়। তা না হলে ১১টা-৭টা। একই সময় ঘুমাবেন, একই সময় উঠবেন। ঘুমের ঘরে থাকবে শয্যা, মৃদু ভলিউমে মিউজিক, অন্ধকার, ফিসফিস আলাপ। মোবাইল অফ, টিভি থাকবে না।

আর কত অঙ্গীকার? এটুকুই হোক না এ বছর।
সর্বশেষ আপডেট ( সোমবার, ০৮ জানুয়ারি ২০১৮ )
 
পরে >
Free Joomla Templates