News-Bangla - নিউজ বাংলা - Bangla Newspaper from Washington DC - Bangla Newspaper

১৮ ডিসেম্বর ২০১৭, সোমবার      
মূলপাতা
পাঠকের মতামত – একাত্তরের হজমিওয়ালা প্রিন্ট কর
আশরাফ আহমেদ. মেরিল্যান্ড   
শুক্রবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭

এবছরের একুশে বইমেলায় আমার প্রকাশিত একাত্তরের হজমিওয়ালা বইটির ওপর ৬ জন কিশোর পাঠকের মূল্যায়ন পেয়েছি। ওরা সবাই ঢাকার ভিকারুন্নেসা নুন স্কুলের ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির ছাত্র। এদের সাথে আমার পরিচয় নেই তো বটেই, কাউকেই আমি চিনিও না। যেহেতু বইটিকে কিশোর উপন্যাস হিসেবে লিখেছি, ওদের নিজস্ব মন্তব্য আমার কাছে খুবই মূল্যবান! ভবিষ্যতে এধরণের আর কিছু লেখার আগে ওদের এই ভাল লাগা, বা না লাগা বিষয়গুলো মাথায় রেখেই আমাকে লিখতে হবে। তাই এই ৬ জন পাঠককে অশেষ ধন্যবাদ জানাই। ওদের বয়সে আমি যে এতো সুন্দর ও গুছিয়ে লিখতে পারতাম না, সে ব্যপারে আমি পুরোপুরি নিশ্চিন্ত! ইদানিং কালে বাংলাদেশের শিক্ষার মান নিম্নমুখী বলে যারা অভিযোগ করেন ওদের লেখা দেখে আমি তা মানতে আর রাজি নই। আর এই পাঠকদের ভেতর থেকেই যে ভবিষ্যতের কোন নন্দিত লেখকের জন্ম নেবে সে ব্যপারেও আমার কোন সন্দেহ নেই। তখন পেছনে ফিরে ওদের মূল্যায়ন ও মন্তব্যগুলো দেখে আরো বেশি গর্ববোধ করবো। আর তা প্রকাশ করতে, এবং বই পড়ায় ও লেখায় উৎসাহ দিতে নীচে পৃথক পৃথক ভাবে নামসহ ওদের মূল্যায়নগুলো কিছুই পরিবর্তন না করে হুবহু সবার সাথে শেয়ার করছি।
ছাত্রদের হাতে বইটি পৌঁছে দেয়া, এবং মন্তব্যগুলো জোগাড় করে পাঠানোর জন্য ভিকারুন্নেসা স্কুল এন্ড কলেজের এসিস্ট্যান্ট হেডমাস্টার শামসুন লিজা এবং শিক্ষক সাইফুল ইসলাম এর প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানাই।

নুসাইবা নাজমী খান – ষষ্ঠ শ্রেণি
‘একাত্তরের হজমিওয়ালা’ একটি চমৎকার মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক কিশোর উপন্যাস। বই কেনার টাকা গাছ লাগাতে ব্যয় হবে শুনে উৎসাহ নিয়ে বইগুলো দেখলাম। বেশ ভাল লাগল। কিনতেও দেরি করলাম না। তখন এই বইটিকে আমি স্থান দিয়েছি আমার প্রিয় বইয়ের তালিকায়।
মুক্তিযুদ্ধের কাহিনী আমাকে অনেক আকর্ষণ করে। আর বইটি পড়ার সময় চরিত্রগুলো আমার সামনে জীবন্ত হয়ে ওঠে। মনে হয় আমি প্রতিটি চরিত্র হয়েই এক রোমাঞ্চকর কাহিনীর ভেতর দিয়ে যাচ্ছি। গল্পের প্রধান চরিত্র অনাথ বালিকা ফুলবানু আমার প্রায় সমবয়সী হওয়ায় উৎসাহ আরো বেড়ে যায়। তার অসহায় জীবনকাহিনী পড়ে তার প্রতি মায়া সৃষ্টি হয়। তার একেকটি সাহসী পদক্ষেপ আমাকে বিস্মিত করে। যাদুকরী দরজার ভেতর দিয়ে অভিযানের সময় একেকটি হৃদয়-বিদারক কাহিনী পড়ে আমার চোখে পানি এসে যায়। একই সাথে পাকিস্তানীদের প্রতি প্রবল ঘৃণার সৃষ্টি হয়। এছাড়া ফুলবানুর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা আমাকে ভবিষ্যৎ সংকল্পে দৃঢ় করতে সাহায্য করে।
আমি মনে করি, যে বইটি পড়ে বিনোদন ও শিক্ষা দুই-ই হয়, সে বই-ই শ্রেষ্ঠ। এ বইয়ে দুটির কোন ঘাটতি নেই। এ বইটি পড়ে একজন পাঠক মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানতে পারবে ও অসহায় দরিদ্রদের প্রতি তার মমতা সৃষ্টি হবে।       

আরাফাত জাহান নীতি – সপ্তম শ্রেণি
অনাথ বালিকা ফুলবানু ‘একাত্তরের হজমিওয়ালা’ উপন্যাসের কেন্দ্রীয় চরিত্র। ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠী ভুল তথ্যের আলোকে যুদ্ধ করতে আসা অনেক পাকিস্তানি সৈন্যের মধ্যে অন্যতম একজন ইব্রাহিম লোদি প্রায়শ্চিত্ত করতে আসে বাংলাদেশে। অনাথ মেয়ে ফুলবানু মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযোদ্ধাদের সঠিক ইতিহাস জানতে পারেন হজমিওয়ালা ইব্রাহিম লোদির কাছ থেকে। এ উপন্যাসের মাধ্যমে লেখক ১৯৭১ এর সময় বাঙালি জাতির প্রতি অমানবিক অত্যাচারের কথা তুলে ধরেছেন। একজন অনাথ মেয়ের বাবা-মার প্রতি যে গভীর ভালবাসা এবং শ্রদ্ধা তা এ উপন্যাসের লেখক আশরাফ আহমেদ তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন।

সানজিদা জাহান আইভি – দশম শ্রেণি
একাত্তরের হজমিওয়ালা বইটি পড়ে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে অনেক সুস্পষ্ট ধারণা পেয়েছি। বইটি পড়ে বেশ আনন্দিত না হলেও এটিতে মুক্তিযুদ্ধের কিছু সত্য ঘটনার প্রমাণ পাওয়া যায়। তবে বইয়ের কাহিনীতে কিছু অস্পষ্টতা রয়েছে, যা আরও একটু স্পষ্ট হলে ভাল হতো।

লামিয়া হাসান আয়েশা – সপ্তম শ্রেণি
এই বইটি বেশ সুন্দর এবং মনমুগ্ধকর। এখানে অনাথ বালিকা ফুলবানু ‘একাত্তরের হজমিওয়ালা’ গল্পের প্রধান চরিত্র। ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি শাসক গোষ্টী ভুল তথ্যের আলোকে যুদ্ধ করতে আসে। অনেক পাকিস্তানি সৈন্যের মধ্যে অন্যতম ইব্রাহিম লোদী প্রায়শ্চিত্ত করতে আসে বাংলাদেশে এবং অনাথ মেয়ে ফুলবানুর কাছ থেকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে পারে। এই উপন্যাসের মাধ্যমে লেখক ১৯৭১ এর সময়ের মুক্তিযুদ্ধের সময়ে বাঙালি জাতির প্রতি অত্যাচার এবং অন্যায়ের কথা প্রকাশ পেয়েছে। এছাড়া মেয়ের মা-বাবার প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালবাসার কথা ফুটে উঠেছে। এই বইটি খুব দক্ষতার সঙ্গে কিশোর কিশোরীদের মনের অলিগলি আলোকিত করেছে। মানুষকে বোঝার জন্য যে গভীর ভালবাসা ও মমতা প্রয়োজন তা এই বইয়ে প্রকাশ পেয়েছে। বর্তমানে এ বইটি পড়ে আমার প্রিয় বইয়ের মধ্যে অন্যতম বই বলে বিবেচিত হয়েছে।

সুরাইয়া ইসলাম – দশম শ্রেণি
‘একাত্তরের হজমিওয়ালা’ বইটি সম্পর্কে বলতে হলে বলব যে বইটি পড়ে আমি খুব আনন্দিত না হলেও বইটিতে মুক্তিযুদ্ধের ভিন্ন আঙ্গিকের উপস্থাপন চমৎকার। বইটি পড়ে খুব আনন্দিত না হবার কারণ হলো আমার মনে হয়েছে বইটির কাহিনীর রহস্য খোলাসা হওয়া উচিৎ ছিল। তারপরও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে বইটি কিশোর পাঠকদের আগ্রহী করে তুলবে।

লাবিবা মারজুকা ইরাতা – ষষ্ট শ্রেণী
একাত্তরের হজমিওয়ালা গল্পটি একটি মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক গল্প। গল্পের বইটি পড়ে আমার খুব ভাল লেগেছে, যেহেতু আমি গল্পের বই পড়তে ভালবাসি। কিন্তু বইয়ের শেষ দিকে পড়ার পর আমার কাছে তা অসম্পূর্ণ মনে হয়েছে। যদি বইয়ের শেষ দিকটি আরো একটু ভালো, উন্নত হলে বইটির মান আরো উন্নত হবে।

পটোম্যাক, মেরিল্যান্ড
৪ঠা আগস্ট, ২০১৭
সর্বশেষ আপডেট ( শুক্রবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ )
 

Add comment


Security code
Refresh

< পূর্বে   পরে >

লগইন বক্স






পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
সদস্য হতে চাইলে রেজিস্টার করুন

A professional services and  IT training firm.
 
  

 DETAILS 

 

 Details

Details 

Details 

 Click here for details

 

 Details 

  Details

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 অন্যান্য পত্রিকা



 


 

 

বাচিক শিল্পী কাজী আরিফের সাথে একটি অনন্য সন্ধ্যা


আমেরিকাতে এখন গ্রীষ্মের শেষ লগ্ন। হেমন্তের (ফল)এর আগমনীর প্রাক্কালে সেদিনের অপরাহ্নটি ছিল সিগ্ধ শ্যামল। গত ১১ই সেপ্টেম্বরের  এমনি এক সোনালী রোদেলা বিকেলে
ভার্জিনিয়া রাজ্যের  স্টারলিংস্থ সিনিয়র সিটিজেন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হল দেশ বরণ্য আবৃত্তি শিল্পী কাজী আরিফের আবৃত্তি সন্ধ্যা।

বিস্তারিত ...
 

২রা এপ্রিল শংকর চক্রবর্তীর মনোজ্ঞ সংগীত সন্ধ্যা


আগামী ২রা এপ্রিল  রবিবার  বিকেল চারটায় ভার্জিনিয়ার স্প্রিংফিল্ডস্থ কমফোর্ট ইন হোটেলে অনুষ্ঠিত হবে  বরণ্য  নজরুল গীতি, গজল এবং হারানো দিনের আধুনিক বাংলা গানের গুনী  শিল্পী  শংকর চক্রবর্তীর একক  সংগীতানুষ্ঠান। সঙ্গত আর সংগীতের অসাধারণ ঐকতানে শংকর চক্রবর্তীর এই মনোজ্ঞ সংগীতের আসরটি  বেশ বৈচিত্র্যপূর্ণ ভাবে সাজানো হচ্ছে। দর্শক শ্রোতারা দারুন ভাবে উপভোগ করবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

বিস্তারিত ...
 

কি কখন কোথায়


No events

মতামত জরিপ

Why do you visit News-Bangla
 
 
Free Joomla Templates