News-Bangla - নিউজ বাংলা - Bangla Newspaper from Washington DC - Bangla Newspaper

১৯ অগাস্ট ২০১৭, শনিবার      
মূলপাতা
‘রাজার হস্ত করে সমস্ত কাঙালের ধন চুরি প্রিন্ট কর
ফারুক ওয়াহিদ, ক্যানেটিকাট থেকে   
সোমবার, ১৯ জুন ২০১৭

“ভিক্ষা যদি কেউ তোমার কাছে চাইতেই আসে, অদৃষ্টের বিড়ম্বনায় তাহলে তাকে ভিক্ষা নাই ই দাও, কুকুর লেলিয়ে দিওনা। আঘাত করার একটা সীমা আছে, সেটাকে অতিক্রম করলে আঘাত অসুন্দর হয়ে আসে আর তক্ষুনি তার নাম হয় অবমাননা।” -কাজী নজরুল ইসলাম।
২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটে সঞ্চয়পত্রের সুদ হার কমানোর ঘোষণা এবং ব্যাংকে আমানতকারীদের উপর সেরকমই আবমাননাকর চরম আতঙ্কিত আঘাত আসছে- যেখানে আমানতকারীর লাভ দূরের কথা পুঁজিই হারিয়ে যাচ্ছে অর্থাৎ পুঁজি নিয়ে টানাটানি। । ব্যাংকে আমানতের উপর আবগারি শুল্ক দ্বিগুণ হচ্ছে। ২০ হাজার টাকা থেকে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত জমার উপর দেড়শ’ টাকার স্থলে দুইশ’ টাকা দিতে হবে। তবে ১ লাখ টাকার উপরে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত স্থিতির উপর বিদ্যমান পাঁচশ’ টাকার স্থলে এক হাজার টাকা গুণতে হবে। ১০ লাখ টাকার উপরে ও এক কোটি টাকা পর্যন্ত স্থিতির উপর দেড় হাজার টাকার স্থলে তিন হাজার টাকা, এক কোটির উপরে ও পাঁচ কোটি টাকা পর্যন্ত স্থিতির উপর সাড়ে সাত হাজার টাকার স্থলে ১৫ হাজার টাকা, ৫ কোটির উপরে যে কোনো পরিমাণ অর্থের ক্ষেত্রে ১৫ হাজার টাকার স্থলে ৩০ হাজার টাকা। এর আগে ২০১৫-১৬ অর্থবছরেও আবগারি শুল্ক বাড়ানো হয়েছিল। আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন সঞ্চয়কারী, ব্যাংক গ্রাহক বা আমানতকারী ও পেনশনভোগীরা।
ব্যাংক আমানতকারীরা যদি ব্যাংকে টাকা রেখে আয়কর, আবগারি শুল্ক, সার্ভিস চার্জ, মূল্যস্ফীতি প্রভৃতি কারণে মূলধন হারায় তবে তারা ব্যাংকে সঞ্চয় করবেন কেন! আর এই গ্রাহকের মূলধন হারানোর দায়িত্ব কে নিবেন? এফডিআর হিসাবগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ হলো ১ লক্ষ টাকা এবং মেয়াদ তিন মাস- এর কারণ হলো মধ্যবিত্ত বাঙালি এবং গৃহিণীরা তাদের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সঞ্চয়ের পরিমাণ ১ লক্ষ টাকা হলেই তারা এফডিআর করতে পছন্দ করেন- কারণ এতে কিছু মুনাফা পাওয়া যায় এবং টাকাটা অপ্রয়োজনে খরচের ভয় থাকে না।
সরকার আগামী পহেলা জুলাই ২০১৭ থেকে ব্যাংক হিসাবের টাকার অংক ১ লক্ষ ১ টাকা হতে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আবগারী শুল্ক নির্ধারণ করেছেন ১০০০ টাকা। অর্থ্যাৎ ১ লক্ষ টাকা তিন মাস মেয়াদে কেউ যদি এফডিআর করে মেয়াদ শেষে তিনি ৪.৫০% হার সুদে সুদ পাবেন ১১২৫ টাকা। উৎস কর হিসাবে এই ১১২৫ টাকার ১৫% হিসাবে কাটা যাবে ১৬৯ টাকা এবং আবগারী শুল্ক ১০০০ টাকা। অর্থ্যাৎ মোট কাটা যাবে (১৬৯+১০০০)=১১৬৯ টাকা। তিন মাস পরে গ্রাহক ফেরত পাবে (১০০০০০+১১২৫-১১৬৯)=৯৯৯৫৬ টাকা। অর্থ্যাৎ গ্রাহক তিন মাস টাকা খাটানোর পর লাভ তো দূরের কথা উল্টো আসল হতে ৪৪ টাকা কম পাবেন। এর চেয়ে বড় শুভঙ্করী ফাঁকি আর কি হতে পারে? বাংলার গণিতবিদ ভৃগুরাম দাস তথা শুভঙ্কর যদি বেঁচে থাকতেন তাহলে এই সময় তিনি বাংলাদেশ সরকারের কাছে আত্মসমর্পণ করতেন।
মানুষের কস্টার্জিত জমানো ধন বা টাকার উপর কেন রাজার নজর পড়লো- লাভ দূরের কথা কেন পুঁজি হারাতে হবে বা পুঁজি নিয়ে টানাটানি- মানুষ এখন তার ঘাম ঝরানো কস্টার্জিত জমানো ধন বা টাকা রাখার জন্য যাবে কোথায়? ক্ষতিগ্রস্থ আমানতকারীরা ব্যাংকে টাকা রাখার চেয়ে জমি, ফ্ল্যাট, গহনা কেনাসহ বিভিন্ন ভোগে অর্থ ব্যয়ের প্রবণতা বেড়ে যাবে এবং বিভিন্ন বহুমুখি প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করে আমানতকারীদের সর্বস্বান্ত হওয়ার ঝুঁকি তৈরি হবে।
যারা ব্যাংকে টাকা রাখেন, তারা নির্দিষ্ট হারে কর দেন- ব্যাংকে যে টাকা থাকে, তা আয়কর রিটার্নে প্রদর্শিত হয়- কাজেই একই টাকার ওপর আবার ‘আবগারি শুল্ক’ কেটে নেয়া হলে এতে ব্যাংকের গ্রাহকদের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টি হতে পারে- দেশে আর্থিক লেনদেন বেড়েছে ব্যবসায়-বাণিজ্য অনেক বেড়েছে- তাই কর বৃদ্ধির সোর্স বা উৎস কি এই নিরীহ ব্যাংক আমানতকারী ছাড়া আর কোথাও খুঁজে পাওয়া যায় না? ব্যাংকিং সেক্টরে কি অশনী সংকেত দেখা দিয়েছে- এর পরিণতি কী ভয়াবহ হতে পারে তা একমাত্র অর্থনীতিবিদগণই ভালো বলতে পারবেন।
মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় কি কেউ স্বপ্নেও কল্পনা করেছিলেন যে দেশকে তারা স্বাধীন করছেন সে দেশে তাদের কস্টার্জিত জমানো ধন বা টাকার উপর সরকার হস্তক্ষেপ করে টাকা কেটে নিবেন এবং সেই কাঙালের (জনগনের) টাকা দিয়ে শুল্কমুক্ত গাড়ি কিনে সেই গাড়ি চরে সারাদেশ ঘুরে বেড়াবেন! রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরতো কবেই বলে গেছেন- ‘রাজার হস্ত করে সমস্ত কাঙালের ধন চুরি’
https://youtu.be/swm9m1mvx1M
সর্বশেষ আপডেট ( সোমবার, ১৯ জুন ২০১৭ )
 

Add comment


Security code
Refresh

< পূর্বে   পরে >

লগইন বক্স






পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
সদস্য হতে চাইলে রেজিস্টার করুন

A professional services and  IT training firm.
 
  

 DETAILS 

 

 Details

Details 

Details 

 Click here for details

 

 Details 

  Details

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 অন্যান্য পত্রিকা



 


 

 

বাচিক শিল্পী কাজী আরিফের সাথে একটি অনন্য সন্ধ্যা


আমেরিকাতে এখন গ্রীষ্মের শেষ লগ্ন। হেমন্তের (ফল)এর আগমনীর প্রাক্কালে সেদিনের অপরাহ্নটি ছিল সিগ্ধ শ্যামল। গত ১১ই সেপ্টেম্বরের  এমনি এক সোনালী রোদেলা বিকেলে
ভার্জিনিয়া রাজ্যের  স্টারলিংস্থ সিনিয়র সিটিজেন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হল দেশ বরণ্য আবৃত্তি শিল্পী কাজী আরিফের আবৃত্তি সন্ধ্যা।

বিস্তারিত ...
 

২রা এপ্রিল শংকর চক্রবর্তীর মনোজ্ঞ সংগীত সন্ধ্যা


আগামী ২রা এপ্রিল  রবিবার  বিকেল চারটায় ভার্জিনিয়ার স্প্রিংফিল্ডস্থ কমফোর্ট ইন হোটেলে অনুষ্ঠিত হবে  বরণ্য  নজরুল গীতি, গজল এবং হারানো দিনের আধুনিক বাংলা গানের গুনী  শিল্পী  শংকর চক্রবর্তীর একক  সংগীতানুষ্ঠান। সঙ্গত আর সংগীতের অসাধারণ ঐকতানে শংকর চক্রবর্তীর এই মনোজ্ঞ সংগীতের আসরটি  বেশ বৈচিত্র্যপূর্ণ ভাবে সাজানো হচ্ছে। দর্শক শ্রোতারা দারুন ভাবে উপভোগ করবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

বিস্তারিত ...
 

কি কখন কোথায়


No events

মতামত জরিপ

Why do you visit News-Bangla
 
 
Free Joomla Templates