News-Bangla - নিউজ বাংলা - Bangla Newspaper from Washington DC - Bangla Newspaper

১৮ নভেম্বর ২০১৭, শনিবার      
মূলপাতা arrow লেখালেখি arrow কাটে না সময় যখন আর কিছুতে :
কাটে না সময় যখন আর কিছুতে : প্রিন্ট কর
মেরিনা রহমান, মেরিল্যান্ড   
বুধবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৭

 

সকাল থেকেই গোমড়ামুখো আকাশটাকে দেখে মনটা ভালো লাগছে না। জানালার বাইরে ধূসর আকাশ আর এলো মেলো বাতাস। ভাবছিলাম এইতো গতকালই কি সুন্দর একটা দিন ছিল।  না বলতে চাইছিনা যে গতকাল আমার প্লাস্টার করা পায়ের কথা ভুলে গিয়ে আমি প্রকৃতি বরণে বাইরে  হাঁটা চলা করেছি। আমার তো এখন শিরে সংক্ৰান্তি চলছে। বিছানা বন্দী জীবন বলা যায়। নিজের সাথে নিজেই লুকোচুরি খেলছি পায়ের অস্বস্তি ভুলে থাকার জন্য।

এ ছাড়া ফেসবুকের পাতায় নানা জনের ছবি দেখছি, মানে চেরি ব্লসম এর ছবি আর কি। মনে মনে পাখা মেলে ঘুরে আসছি ওসব জায়গা থেকে।  গতকাল জানালায় চোখ রেখে আমার বাড়ির সামনে পেছনে ফুটে থাকা ফুল গুলো দেখছিলাম। ভাছিলাম কি অবাক কান্ড কোথায় ছিল প্রকৃতির এতো কথা? একটু একটু করে নানা রঙের ফুলের মেলায় সাজতে শুরু করেছে। কোথাও  আবার ফুলের আড়ালে সবুজ রঙের আলপনা।  নীল আকাশটার গায়ে ভেসে থাকা সাদা মেঘের সাথে যেন হালকা গোলাপি আর সাদা ফুলের একটা অপূর্ব সখ্যতা।  
কিন্তু আজ? এই ধূসর দিনটা মনটাই বিষণ্ণ করে দিলো।  মনে হচ্ছে দিনটা খুউউব লম্বা এর কোনো শেষ নেই। এই তো কিছুক্ষন আগে হচ্ছিলো টিপ্ টিপ্ বৃষ্টি আর এখন শুরু হলো ঝম ঝম বৃষ্টি। যদিও বলা হয় এপ্রিল মাসের বৃষ্টি প্রকৃতির স্বাস্থ্যের জন্য ভালো কিন্তু আমার তাতে কিইবা এসে যায়।  সেই তো বসে বা শুয়েই দিন যাপন। মানে আরো একটা পুরো মাস তো এরকমই কাটবে।
একটা একটা  করে দিন গুনছি।  কবে এই বন্দিদশা থেকে মুক্তি মিলবে। আমার অবস্থা এখন আমার বিড়াল পুম্বার মতো।  ও হ্যাঁ আমার বিড়ালের নাম পুম্বা। আমার এখন ওর মতোই দিন কাটে।  কাজের মধ্যে তিন, খাই, শুই আর মাঝে মাঝে ছোট ঘরে যাই। আরো একটা কাজ আছে সেটা হলো আমার বন্ধুদের ফোন আনসার করা।  আমার বন্ধুরা প্রায় প্রত্যেকদিনই ফোন করে আমার খবরাখবর নেয়ার জন্য। এই প্রবাসে আমাদের সবচেয়ে কাছের আর বড় আত্মীয়।  
তো যা বলছিলাম, পুম্বার আবার আমার জন্য খুব দরদ।   আমার কাছাকাছিই থাকে। হটাৎ হয়তো মনে  হলো কোলে উঠে আদর নেয়ার জন্য চিৎ হয়ে শুয়ে পড়লো।  না তাকে কোনো ভাবেই অবজ্ঞা করা যায় না কারণ উনি জানেন কিভাবে আমার মনোযোগ তার নিজের দিকে নিতে হয়।  সরাসরি ল্যাপটপের উপর উঠে বসবে।  আমি কিছু নিয়ে ব্যস্ত হবো সেটা তার মোটেই পছন্দ নয়, অন্তত সে যখন আমার কোলে। তখন আমি ওর ডাকে মনোযোগ দিয়ে ভুলে থাকি আমার সঙ্গীন অবস্থাকে।  সেও একরকম সময় কাটানো বলা যায়।  
বৃষ্টি থেমেছে বেশ কিছুক্ষন, তবে আকাশ এখনো ধূসর হয়তো আবার কান্না শুরু হতে পারে। আবহাওয়া সংবাদ বলছে আজ সারাদিন এমনটাই যাবে। অর্থাৎ সূয্যি মামার দেখা মিলবে না অন্তত বিকেল ৬টার আগে।  মাঝে মাঝে মনে হচ্ছে একটু বাইরে যাই।  নাহঃ তার আর কোনো উপায়ই  নাই।  এখন বন্দী আমার দিন কাটবে কিছুদিন এভাবেই। তাই নিজেকে  নিজেই বলছি "মন কে বোঝাও, ধৈর্য ধরো, সহ্য করো এ কষ্ট, কেটে যাবে দিন শেষ হবে মাস সামনে সুদিন স্পষ্ট"
সর্বশেষ আপডেট ( বুধবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৭ )
 

Add comment


Security code
Refresh

< পূর্বে   পরে >
Free Joomla Templates