News-Bangla - নিউজ বাংলা - Bangla Newspaper from Washington DC - Bangla Newspaper

১৯ নভেম্বর ২০১৭, রবিবার      
ওয়াশিংটনে দূতাবাসে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত প্রিন্ট কর
নিউজ-বাংলা ডট কম   
সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৪
 

যথাযথ ভাব গাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে আজ ওয়াশিংটনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে ৬২ তম মহান শহীদ দিবস ও ১৫তম আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়। গত ২২ শে ফেব্রুয়ারি শনিবার বিকেল পাচটা থেকে আটটা অবধি  দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।
 
দ্বিতীয় পর্বের অনুষ্ঠান সাজানো হয় দিবসটির স্মরণে আলোচনা এবং বর্নাঢ্য সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে। বাংলাদেশের ভাষা আন্দোলনের রক্ত স্মারক- ২১ শে ফেব্রুয়ারীর তাৎপর্য তুলে ধরা এবং এর সাথে পৃথিবীর বুকে প্রায় ৭০০০ মাতৃভাষাকে মর্যাদাবান এবং সংহতি প্রকাশের লক্ষ্যেই ছিল এই মহতী আয়োজনের। যুক্তরাষ্টে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জনাব আকরামুল কাদেরের স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সুচনা হয়। তাঁর বক্তব্যে মহান ২১শে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও তাদের আত্ম-ত্যাগের কথা উল্লেখ করে বলেন যে, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস এখন বিশ্ব সম্প্রদায়ের জন্য ভাষা উৎসবে পরিণত হয়েছে। এ প্রসংগে তিনি ভাষা আন্দোলনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদানের কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে বলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুব রহমান জেলে থেকে ভাষা আন্দোলনে অংশ গ্রহণ করেন এবং ভাষা আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়িত করেন। ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে একুশে ফেব্রয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করেন এবং এই বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘে অন্যতম দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে গ্রহণ করার জন্য মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগের প্রশংসা করে রাষ্ট্রদূত আকরামুল কাদের বলেন বিশ্বের ২৫০ মিলিয়ন বাংলা ভাষী জনগণ কথা বলেন তাই আজ এই বাংলা ভাষা বিশ্ব দরবারে সমাদৃত। তিনি আরো বলেন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা পালন হলো শক্তিশালী ও উৎসাহ উদ্দীপনার এক অভিন্ন ঐক্যের প্রতিফলন। তিনি আরো বলেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের আঞ্চলিক ভাষা এবং সংস্কৃতিক বিলীন হয়ে যাচ্ছে। তাই তিনি বিশ্বের সকলকে জাতিকে সম্প্রতির মাধ্যমে বিভিন্ন সংস্কৃতিক রক্ষা করার জন্য এক সাথে কাজ করার আহবান জানান। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে দূতাবাসের বংগবন্ধু অডিটরিয়ামে হল উপচে পড়া দর্শককের উপস্থিতিতে আন্তর্জাতিক অবয় এবং আংগিকে সাজানো সাংষ্কৃতিক পর্ব। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সহ ১৮টি দেশের প্রতিনিধি শিল্পীরা অংশ গ্রহন করে। এ বছর এস্টোনীয়া, প্যারাগুয়ে, চীন, ভারত, আফগানিস্তান, শ্রীলংকা, জাপান, রাশিয়া, সাউথ কোরিয়া, উগান্ডা এবং ফিজির শিল্পীরা তাদের নিজস্ব ভাষা এবং সংষ্কৃতির ধারক নাচ এবং গানের প্রানবন্ত পরিবেশনায় অনুষ্ঠানকে প্রাঞ্চল করে । বহু জাতিক অবয়ে আয়োজিত বর্নাঢ্য এই সাংষ্কৃতিক সন্ধ্যায় বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করেন বাংলাদেশ দূতাবাস পরিবারের নিজস্ব পরিবেশনা। তাদের সমবেত কন্ঠে পরিবেশিত "আমার ভাইয়ের রক্তে রাংগানো" সহ দুটি অনুষ্ঠান স্থলে নিয়ে আসে একুশের চেতনার পরশ। সাথে ছিল ভয়েস অব আমেরিকার কথা সাংবাদিক আনিস আহমেদের কবিতার সাথে নৃত্য পরিবেশন করেন ভয়েস অব আমেরিকার তারুন্যের সাংবাদিক শতরূপা বড়ুয়া। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ওয়াশিংটনস্থ কূটনৈ্তিক মিশনের সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি ও বিভিন্ন ভাষাভাষী বিদেশী অতিথি, প্রবাসী বাংলাদেশীরা বাংলাদেশ দুতাবাসের উদ্যোগে আয়োজিত এই বণাঢ্য মনোমুগ্ধকর অনুষ্ঠানটির মধ্য দিয়ে বিশ্ব মানচিত্রের বিভিন্ন ভাষা এবং সাংষ্কৃতির সাথে পরিচিত হতে পেরে দর্শক শ্রোতারা ছিল বিমুগ্ধ। অনুষ্ঠানশেষে আমন্ত্রিত অতিথিদের ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশী খাবারে আপ্যায়িত করা হয়।
সর্বশেষ আপডেট ( সোমবার, ০৭ জুলাই ২০১৪ )
 

Add comment


Security code
Refresh

< পূর্বে   পরে >
Free Joomla Templates