News-Bangla - নিউজ বাংলা - Bangla Newspaper from Washington DC - Bangla Newspaper

২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার      
মূলপাতা arrow লেখালেখি arrow ফিচার arrow রাজনৈতিক সংকট সহিংসতার দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে
রাজনৈতিক সংকট সহিংসতার দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে প্রিন্ট কর
নিউজ-বাংলা ডেস্ক   
শুক্রবার, ২৯ নভেম্বর ২০১৩
   
সহিংসতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে নাগরিক সমাজকে প্রচন্ড চাপ সৃষ্টির আহবান জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের উড্রো উইলসন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, রাজনৈতিক গবেষক ও বিশ্লেষক আলী রিয়াজ। বিবিসি বাংলাকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, সহিংসতার কারণ রাজনৈতিক হলেও, বছর খানেক ধরে এর মাত্রা, প্রকৃতিতে বড় ধরনের পরিবর্তন ঘটে গেছে। সহিংসতা রাজনীতিতে নতুন নয়, তবে যে পর্যায়ে এটা এখন দেখতে পাচ্ছি তা শুধু এখনকার জন্যে উদ্বেগজনক নয়, ভবিষ্যতে এটা নিয়ে শঙ্কিত হবার যথেষ্ট কারণ রয়েছে।
আলী রিয়াজ বলেন, অব্যাহত সহিংসতার শঙ্কাটা ভবিষ্যতের জন্যে আরো বেশি। রাজনৈতিক প্রক্রিয়ার দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাচ্ছে, রাজনীতির নিয়ন্ত্রণ বের হয়ে যাচ্ছে। যারা এ ধরনের নিয়মতান্ত্রিক, সাংবিধানিক পথের মধ্যে দিয়ে আন্দোলন পরিচালনা করবেন, দাবি আদায় করবেন, সেখান থেকে সবাই সরে যাচ্ছেন। কারণ সংবিধানের মধ্যে দিয়ে কেউ পথ দেখছেন না। নিয়মনীতির আন্দোলনের পথ বন্ধ হয়ে যাচ্ছে এ সম¯ত্ম বিবেচনা থেকে তারা সরে যাচ্ছেন। ফলে উদ্বেগ বাড়ছে। এক ধরনের অসম সংঘাত তৈরি হচ্ছে। নেতৃত্বের দ্বন্দ্ব। যে পক্ষ আকারে বড় তারাই বিজয়ী হবেন, এটা মনে করার কোনো কারণ নেই। এবং এ পরিস্থিতি দীর্ঘমেয়াদে বাংলাদেশের রাজনীতির জন্যে উদ্বেগজনক। তিনি বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে অব্যাহত সহিংসতার মধ্যে দিয়ে এর একটা কুটির শিল্প তৈরি হচ্ছে। সহিংসতায় যে সম¯ত্ম উপাদান ব্যবহৃত হচ্ছে-বোমাবাজী থেকে শুরু করে যে সম¯ত্ম প্রক্রিয়া পদ্ধতি, এগুলো আসলে বাংলাদেশে দীর্ঘমেয়াদে থেকে যাবে বলে আমাদের আমাদের আশঙ্কা। এ সহিংসতার নিয়ন্ত্রণ কাদের কাছে তা জানতে চাইলে আলী রিয়াজ বলেন, এ মূহুর্তে হয়ত বিরোধীদল বলতে পারেন তাদের কাছে আছে- ভবিষ্যতে এটা যে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবহৃত হবে না, তার কোনো কারণ নেই। আগামীকাল যে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবহার হবে না, তার কোনো গ্যারান্টি নেই। এবং এ অব্যাহত সহিংসতা শেষ পর্যšত্ম নিয়ন্ত্রণ রাজনীতির বাইরে যারা আছে তাদের হাতে তুলে দেবে কী না- দিচ্ছে কীনা সেটা বোঝা যাচ্ছে না। তবে অধ্যাপক আলী রিয়াজ বলেন, সহিংসতার কোনো রাজনীতি নেই- এ পরিস্থিতি তৈরি হল কেনো তার মধ্যে রাজনীতি আছে। সহিংসতা যে হচ্ছে সেটা আইনশৃঙ্খলা বলুন, নৈতিক বিবেচনায় বলুন- সেটা অগ্রহণযোগ্য, ক্ষতিকারক এবং কোনো অবস্থাতেই সমর্থনযোগ্য নয়। কিন্তু সহিংসতার রিলেশনশিপটা দেখতে হবে। কোথা থেকে তৈরি হচ্ছে। মূল সমস্যার সমাধান না করে শুধু মাত্র ট্যাকটিসের বিরুদ্ধে, স্ট্রাটেজির বিরুদ্ধে বা কৌশলের বিরুদ্ধে বিজয়ী হবেন এটা মনে করার কোনো কারণ নেই। সহিংসতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে শেষ পর্যšত্ম নাগরিক সমাজকে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়ে আলী রিয়াজ বলেন, এটা বন্ধ করার দায়িত্ব নাগারিকদের। এখন এ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে অহিংস নৈতিক শক্তির যে প্রয়োজন সবচেয়ে বেশি- নাগরিকদের সম্মিলিত শাšিত্মপূর্ণ সমাবেশ কাটিয়ে নৈতিক চাপ তৈরি করা, কার্যকর চাপ তৈরি করা। সেটা কোনো এক পক্ষের উপর নয়, সরকার বা বিরোধীদলের উপর নয়, সকলের উপর এ নৈতিক চাপ প্রয়োগ করতে হবে। বলতে হবে, আপনারা রাজনৈতিক সংকট সহিংসতার দিকে ঠেলে দিয়েছেন। এটা এখন সমাধান করুন। সেই নাগরিকরা এটা করতে পারবে যাদের রাজনৈতিক পরিস্থিতি বা এ পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে লাভবান হবার কোনো কারণ নেই, ক্ষতিরও কারণ নেই।
সর্বশেষ আপডেট ( সোমবার, ১৪ জুলাই ২০১৪ )
 

Add comment


Security code
Refresh

< পূর্বে   পরে >
Free Joomla Templates