News-Bangla - নিউজ বাংলা - Bangla Newspaper from Washington DC - Bangla Newspaper

১৭ অক্টোবর ২০১৭, মঙ্গলবার      
মূলপাতা
বৌদ্ধ জনপদে মৌলবাদী তান্ডব দাহন কেন? প্রিন্ট কর
সোনা কান্তি বড়ুয়া, টরন্টো থেকে   
বুধবার, ০৩ অক্টোবর ২০১২

সম্প্রতি ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১২ দানবীয় মৌলবাদীরা ইসলাম ধর্মকে অপব্যবহার করে বাংলাদেশের রামু, পটিয়া ও টেকনাফে বৌদ্ধবসতি এবং বুদ্ধ মন্দিরে হামলার তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ প্রতিবাদ করেছেন দেশ এবং বিদেশের বিশ্ববৌদ্ধ সংগঠন সমূহ। জনম বিশ্বের তরে পরার্থে কামনাই বৌদ্ধধর্ম এবং ইসলাম সহ সকল ধর্মের মূলমন্ত্র।

 রামু ও উখিয়ায় ১৯ টি পরম পূজনীয় হাজার বছরের ঐতিহ্যবাহী বুদ্ধমন্দির  এবং পটিয়ায় জনগণ বন্দিত বিভিন্ন বৌদ্ধ মন্দিরে আগুন দিয়ে বৌদ্ধ বসতি পূর্ণ এলাকা জুড়ে রাতের পর রাত তান্ডবলীলা করে ৪৫ টি গৃহ ধ্বংস করেছে। মানুষ মানুষের জন্যে। আল্লাহ রাব্বুল আলামীন পবিত্র কোরআন মজীদে ঘোষনা করেছেন, “অন্য ধর্মের ধর্মস্থান ধ্বংস কর না  ( ২২ ঃ ৩৮)। অন্য ধর্মকে গালাগাল কর না ( ৬ : ১০৬)। “তুমি তোমার ধর্ম তোমার মতো করে পালন কর, আমি আমার ধর্ম আমার ধর্মের অনুশাসন অনুসারে পালন করবো ( আল - কাফিরুন, ১০৯)।” গৌতমবুদ্ধ পৃথিবীতে শান্তি প্রচার করেছেন। তিনি  কার ও ঘরে আগুন দেন নি এবং অন্যের কোন ক্ষতি করেন নি।  তাই বাংলাদেশের শান্তিকামী মুসলমান জনগণ  বিশ্বনন্দিত বাংলাদেশের মনীষী বৌদ্ধ সাধক বঙ্গরত্ন শ্রী জ্ঞান অতীশ দীপংকরের নামে ঢাকায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত করেছেন (দৈনিক ইত্তেফাক, মে ১৫, ২০০৫ বাংলাদেশের শান্তিকামী জনতা, বৌদ্ধগণ সহ আমরা  উক্ত মৌলবাদীদের অন্যায় ক্রাইমের জন্যে বিচার চাই। 

২৫ হাজার বন্য প্রানী সম্মিলিত ভাবে অন্য বন্য প্রানীর ক্ষতি করে না। ছি: মানব জন্মই বৃথা! আজকের জন অরণ্যে পশুর চেয়ে ও অধম দেহধারী হিংস্র জন মানব। সরকার প্রশাসন শক্ত না হলে আবার ও নরদেহ ধারী পশুরা আক্রমন করবে মানুষ জাতিকে। অথচ আইনের শাসন রক্ষাকারী স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন সব দেখে শোনে চুপচাপ ছিল। ২৫ হাজার মৌলবাদী জনতার আক্রমনে বৌদ্ধ জনতা নারী ও শিশুগণ নিজেদের ঘর ছেড়ে বনে জঙ্গলে আশ্রয় নিয়েছে। হায় রে সেই একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের দিন জাগ্রত দ্বারে। বড়–য়া বৌদ্ধগণের ক্রন্দনে আকাশ বাতাস ব্যাকুল হয়ে উঠেছে। মৌলবাদীদের কবলে পড়ে বিধ্বস্ত হলো জীবন ও জীবিকার আশ্রয়স্থল। মৌলবাদীদের সৃষ্ঠ অত্যাচারের ঘূর্নিঝড়ের পর সংসার সংগ্রাম কি ভাবে করবে বড়–য়া বৌদ্ধ জনগণ? অদ্ভূত অমানবিক আক্রমনের শিকার দেশের সংখ্যা লগিষ্ট জনতা।   সন্ত্রাসী, দানবীয় মৌলবাদীগণ, রোহিঙ্গা এবং বড়–য়া বৌদ্ধদের রক্তের রঙ লাল। রক্তে কোথাও জাত ধর্ম লেখা নেই। ধর্ম মানুষের মনের মহাবস্তু এবং হিংস্র মনে “আশরাফুল মাখলুকাত ” থাকে না। রোহিঙ্গা মৌলবাদীরা ইসলামের শান্তি ও বিশ্বমানবতা মেনে না চলে আরাকানে রাষ্ঠ্রদ্রোহী কাজে লিপ্ত ছিলেন এবং “ ১৬৫৯ সালে এই রাষ্ঠ্রদ্রোহী কাজে যোগদান থাকায় মহাকবি আলাওলের ৫০ দিনের কারাবাস হয়েছিল (নয়া দিগন্ত,  ১৪ জানুয়ারি, ২০০৮)।” )। বাংলাদেশের ‘রাষ্ঠ্রধর্ম ইসলাম’ প্রসঙ্গে জনতার অভিমত ছিল প্রিয় নবী রাসুল্লাহ (সাঃ) মদিনা সনদের ২৫ নম্বর অনুচ্ছেদে বলেছেন,
  “মুসলমান এবং ইহুদিগণ এক উম্মাহ (জাতি, দেশের নাগরিক)।” তিনি মদিনায় ধর্মনিরপেক্ষ   রাষ্ঠ্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন (জনকণ্ঠ, ৫ নভেম্বর ২০০৭)।

ধর্মের নামে অত্যাচার ও বুদ্ধমন্দির ধ্বংসই কি ইসলাম? “ ১০ বছরে বাংলাদেশে ৯ লক্ষ হিন্দু কমেছে ( টরন্টোর বাংলা কাগজ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১২)।”  কারন লক্ষ লক্ষ বিহারি শরনাথী এবং রোহিঙ্গা শরনার্থী বাংলাদেশে
জামায়তের দলে যোগদান করেছে। শেখ মুজিবের বাংলাদেশে মৌলবাদীরা   এ তো শক্তিশালী হবার কারন ইসলামকে রাষ্ঠ্রধর্ম করা এবং জামাতের নেতাগণ ইসলাম ধর্মের ব্রাহ্মণ হয়ে সামাজিক শক্তি দখল করেছে। সাপ মেরে লেজে পরান থাকায়  মৌলবাদীরা ধর্মের  মুখোষ  পরে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের আদর্শকে তিলে তিলে ধ্বংস করবে। রাষ্ঠ্রধর্ম ইসলামের কারনে দেশের স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের অবহেলায় উক্ত ২৫ হাজার মৌলবাদী এবং রোহিঙ্গাগণ বড়–য়া বৌদ্ধগণের  ঘর বাড়ী এবং বুদ্ধ মন্দির ধ্বংস করেছে। ২৫ হাজার রোহিঙ্গা আরাকানে কোন বুদ্ধ মন্দির আক্রমন করার সাহস করবে কি?

লেখক সোনাকান্তি বড়–য়া জাতিসংঘে সাবেক বৌদ্ধ প্রতিনিধি, কথাশিল্পী ও  আন্তর্জাতিক গ্রন্থকার।

সর্বশেষ আপডেট ( বৃহস্পতিবার, ০৪ অক্টোবর ২০১২ )
 

Comments  

 
#1 RE: বৌদ্ধ জনপদে মৌলবাদী তান্ডব দাহন কেন?Sujit Barua 2012-10-26 02:01
The above article depict a warning ball to Buddhist community in Bangladesh,whic h is less than 1% of Bangladesh population. Sooner or later Buddhism in Bangladesh will be in History, if government of Bangladesh not recognize as protected religion or protected ethnic community in Bangladesh.
Quote
 

Add comment


Security code
Refresh

< পূর্বে   পরে >

লগইন বক্স






পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
সদস্য হতে চাইলে রেজিস্টার করুন

A professional services and  IT training firm.
 
  

 DETAILS 

 

 Details

Details 

Details 

 Click here for details

 

 Details 

  Details

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 অন্যান্য পত্রিকা



 


 

 

বাচিক শিল্পী কাজী আরিফের সাথে একটি অনন্য সন্ধ্যা


আমেরিকাতে এখন গ্রীষ্মের শেষ লগ্ন। হেমন্তের (ফল)এর আগমনীর প্রাক্কালে সেদিনের অপরাহ্নটি ছিল সিগ্ধ শ্যামল। গত ১১ই সেপ্টেম্বরের  এমনি এক সোনালী রোদেলা বিকেলে
ভার্জিনিয়া রাজ্যের  স্টারলিংস্থ সিনিয়র সিটিজেন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হল দেশ বরণ্য আবৃত্তি শিল্পী কাজী আরিফের আবৃত্তি সন্ধ্যা।

বিস্তারিত ...
 

২রা এপ্রিল শংকর চক্রবর্তীর মনোজ্ঞ সংগীত সন্ধ্যা


আগামী ২রা এপ্রিল  রবিবার  বিকেল চারটায় ভার্জিনিয়ার স্প্রিংফিল্ডস্থ কমফোর্ট ইন হোটেলে অনুষ্ঠিত হবে  বরণ্য  নজরুল গীতি, গজল এবং হারানো দিনের আধুনিক বাংলা গানের গুনী  শিল্পী  শংকর চক্রবর্তীর একক  সংগীতানুষ্ঠান। সঙ্গত আর সংগীতের অসাধারণ ঐকতানে শংকর চক্রবর্তীর এই মনোজ্ঞ সংগীতের আসরটি  বেশ বৈচিত্র্যপূর্ণ ভাবে সাজানো হচ্ছে। দর্শক শ্রোতারা দারুন ভাবে উপভোগ করবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

বিস্তারিত ...
 

কি কখন কোথায়


No events
< অক্টোবর ২০১৭ >
বু বৃ শু
২৫ ২৬ ২৭ ২৮ ২৯ ৩০
১০ ১১ ১২ ১৩ ১৪ ১৫
১৬ ১৭ ১৮ ১৯ ২০ ২১ ২২
২৩ ২৪ ২৫ ২৬ ২৭ ২৮ ২৯
৩০ ৩১

মতামত জরিপ

Why do you visit News-Bangla
 
 
Free Joomla Templates